কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন ইরফান সেলিম

রাজনীতি প্রতিবেদক প্রকাশিত : ২৮ এপ্রিল ২০২১

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ থেকে জামিন পাওয়ার পর ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩০ নম্বর ওয়ার্ডের সাময়িক বরখাস্ত হওয়া কমিশনার ইরফান সেলিম।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার (কেরানীগঞ্জ) থেকে মুক্তি দেওয়া হয়। ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) জেলার মাহাবুবুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মাহাবুবুল ইসলাম জানান, বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ইরফান সেলিম ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার (কেরানীগঞ্জ) থেকে বের হয়েছেন। আদালত থেকে জামিনের কাগজ পেয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

এর আগে দুপুরে ইরফান সেলিমের আইনজীবী শ্রী প্রাণ নাথ বলেন, গত ২৫ এপ্রিল আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ ইরফান সেলিমের জামিন বহাল রাখেন। সর্বোচ্চ আদালতের সেই আদেশ আজ বিচারিক আদালতে আসে। আসামিপক্ষ সকালেই জামিননামা জমা দেওয়ার পর বিকেলেই কেরানীগঞ্জ কেন্দ্রীয় কারাগারে জামিননামা পৌঁছালে তিনি মুক্তি পাবেন। অবশেষে বিকেলে মুক্তি পান তিনি।

কারা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ইরফান সেলিমকে আনতে পরিবারের কেউ কারাগারে যাননি। মদিনা গ্রুপের দুজন কর্মকর্তা তাকে আনতে যান। কারাগার থেকে বের হওয়ার পর তাকে ফুলের মালা পরিয়ে ব্যক্তিগত গাড়িযোগে ঢাকার বাসায় ফিরেন তারা।

ইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে করা মোট পাঁচটি মামলার মধ্য চকবাজার থানায় করা একটি মাদক ও একটি অস্ত্র মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) তাকে অব্যাহতি দিয়ে সুপারিশ করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। বাসায় মাদক রাখার দায়ে একটি মামলায় ইরফান সেলিমকে এক বছর ও অবৈধ ওয়াকিটকি রাখার দায়ে ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবে এ দুই মামলায় নির্বাহী আদালতে আপিল করে জামিনে রয়েছেন তিনি। আর নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধর ও হত্যার হুমকির অভিযোগের মামলায় সর্বোচ্চ আদালতে তার জামিনের আদেশ বহাল রয়েছে।

গত বছরের ২৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় কলাবাগান ক্রসিংয়ে নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ওয়াসিফকে মারধর করেন ইরফান সেলিমের সঙ্গে থাকা চারজন। এ ঘটনায় ইরফান সেলিমসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২৬ অক্টোবর ধানমণ্ডি থানায় ‘মারধর ও হত্যাচেষ্টা’ মামলা করেন নৌবাহিনীর ওই কর্মকর্তা। ওই দিনই ইরফান সেলিমকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ মামলায় ইরফান সেলিম ঢাকার আদালতে জামিনের আবেদন করলে ওই আদালত গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর তা খারিজ করে দেন। এরপর হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন ইরফান সেলিম। হাইকোর্ট জামিন প্রশ্নে রুল জারি করেন। এ রুলের ওপর শুনানি শেষে জামিন মঞ্জুর করে রায় দেন হাইকোর্ট।

রাজনীতি/সাদেক

আপনার মতামত লিখুন :