গানজা শহরে আর্মেনিয়ার হামলায় ১৩ নাগরিক নিহত

ছবি সংগৃহীত

নিজস্ব প্রতিবেদক: গানজা শহরে আর্মেনিয় সেনাদের গোলায় বাড়িঘর ধ্বংস ছাড়াও কমপক্ষে ১৩ নাগরিক নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে আজারবাইজান। আহত হয়েছেন আরও ৪০ জন। বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে চলমান যুদ্ধ-সংঘাতের মধ্যে এ হতাহতের খবর জানা গেল।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী আজারবাইজানের প্রসিকিউটর জেনারেলের কার্যালয় জানিয়েছে, দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর গানজার দুটি আবাসিক ভবনে আর্মেনিয়ার গোলা আঘাত হানলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। তবে আর্মেনিয়ার পক্ষ থেকে এখনও আনুষ্ঠানিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।

গানজার অপর অংশে দ্বিতীয়বারের মতো হামলা হয়েছে শনিবার। এ ছাড়া তৃতীয় হামলাটি করা হয়েছে কাছাকাছি কৌশলগত শহর মিনজেসিভিরে। আজেরি বাহিনী বিচ্ছিন্নতাবাদী আর্মেনিয়া জাতিগোষ্ঠী শাসিত অঞ্চল নাগোরনো-কারাবাখের রাজধানী স্টেপানাকার্টে হামলা করার কয়েক ঘন্টা পর এই হামলা হয়।

গানজার সাংবাদিকরা বলছেন, আর্মেনিয়ার গোলার আঘাতে শহরের অনেক বাড়িঘর মুহূর্তেই ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। ছিন্নভিন্ন শরীরের বিভিন্ন অংশ কালো ব্যাগে করে বহন করতে দেখা গেছে উদ্ধারকর্মীদের। হামলায় বাড়িঘর দেয়াল আরও ছাদ ধসে পড়েছে। সেই ধ্বংসাবশেষে পূর্ণ হয়ে রয়েছে পাশের রাস্তুগুলো।

আন্তর্জাতিকভাবে অঞ্চলটি আজারবাইজানের হলেও দখলে রয়েছে আর্মেনিয়া খিস্টান জাতিগোষ্ঠীর। সম্প্রতি শুরু হওয়া এই যুদ্ধ-সংঘাত বন্ধে আন্তার্জাতিক পরিসরে যে চেষ্টা চলছে চলমান হামলা তা হুমকির মুখে ফেলেছে। এ ছাড়া দুই পক্ষের হয়ে সংঘাতে রাশিয়া ও তুরস্কের মুখোমুখি অবস্থান নেয়ার শঙ্কা তো রয়েছেই।

রাজনীতি/কাসেম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here