টুইটারে বড় ধরনের বিভ্রাট

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্কঃ বড় ধরনের বিভ্রাটের বিষয়ে অবশেষে ব্যাখ্যা দিল টুইটার। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম কোম্পানিটি জানিয়েছে, তাদের ‘অনিচ্ছাকৃত অভ্যন্তরীণ পরিবর্তনের’ কারণে এমনটি হয়েছে।

টুইটার ‘অনিচ্ছাকৃত অভ্যন্তরীণ পরিবর্তনের’ কথা বললেও প্রযুক্তি বিশ্লেষকেরা অন্য ইঙ্গিত দিচ্ছেন। দ্য ভার্জের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টুইটারের অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস (এপিআই)-এর ডাউনটাইমের কারণে সমস্যাটি হয়েছে।

টুইটার তাদের সর্বশেষ বিবৃতিতে বলেছে, ‘আমরা জানি অনেকেই ক্ষতির মুখে পড়েছেন। তবে কারো তথ্য হ্যাকড হয়নি। ’

এর আগে ২০১৯ সালে একবার এমন সমস্যা হয়েছিল টুইটারে। সেবার প্রায় ঘণ্টা খানেক অচল ছিল সাইটটি।

এবার বিভ্রাট দেখা দেওয়ায় এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে অনভিপ্রেত পরিস্থিতির মুখে পড়েন অনেক ব্যবহারকারী। এসময় প্ল্যাটফর্মটি ব্যবহার করতে পারেননি তারা। টুইট করতে গেলে ব্যবহারকারীরা ‘সামথিং ওয়েন্ট রং’ এবং ‘টুইট ফেইলড: দেয়ারস সামথিং রং, প্লিজ ট্রাই এগেইন লেটার’ লেখা বার্তা পান।

প্রথমে এ বিষয়ে কোনো ধারণা না দিলেও কয়েক ঘণ্টা পর টুইটার জানায়, দ্রুততম সময়ে সার্ভার ঠিক হয়েছে। কোনো ধরনের হ্যাকিংয়ের প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

রয়টার্স জানিয়েছে, প্রায় ৫৫ হাজার ব্যবহারকারী বিভ্রাটের কবলে পড়েছিলেন।

গত কয়েক মাস ধরে নানা ধরনের সমস্যায় পড়তে হচ্ছে টুইটারকে। অনেক প্রভাবশালী ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট পর্যন্ত হ্যাক হয়েছে। নতুন ঘটনা তারই অংশ কি না, সেই প্রশ্ন উঠেছে এদিন সকাল থেকে।

রাজনীতি/সাদিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here