দেশে করোনায় মৃত্যু তিন হাজার, ২৪ ঘণ্টায় বেড়েছে শনাক্ত

বিজ্ঞাপন
6 Shares

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার জনের।

নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন দুই হাজার ৯৬০ জন। সবমিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই লাখ ২৯ হাজার ১৮৫ জনে।

আর একই সময়ে সোমবার (২৭ জুলাই) করোনায় মারা গেছেন ৩৭ জন এবং আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৭৭২ জন। সেই হিসেবে মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) কমেছে মৃত্যু ও বেড়েছে আক্রান্তের সংখ্যা।

মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য দেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

নাসিমা সুলতানা জানান, ঢাকা সিটিসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ও বাড়িতে উপসর্গবিহীন রোগীসহ গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৭৩১ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন এক লাখ ২৭ হাজার ৪১৪ জন।

তিনি আরও জানান, সারাদেশে ৮১ টি ল্যাব আছে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৯ টি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৩২ টি ল্যাব চালু আছে। গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৩ হাজার ৭০ টি। আগের নমুনাসহ মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১২ হাজার ৭১৪ টি। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১১ লাখ ৩৭ হাজার ১৩১ টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৩৫ জনের মধ্যে ২৬ জন পুরুষ ও নারী নয়জন। তাদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে পাঁচজন ও খুলনা ও সিলেট বিভাগে চারজন করে আটজন, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে দুইজন করে চারজন, রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগে তিনজন করে ছয়জন রয়েছেন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৮১ থেকে ৯০ বছরের মধ্যে চারজন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে দুইজন রয়েছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৭১৩ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৭৩২ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন ৪৮ হাজার ৪৮৯ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ২৯ হাজার ৫১১ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১৮ হাজার ৯৮৮ জন।

দেশে গত ৮ মার্চ করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত (কোভিড-১৯) প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

রাজনীতি/কাসেম

6 Shares
বিজ্ঞাপন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here