বাবার মৃত্যু সইতে না পেরে ছেলের আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, নেত্রকোনাঃ বিশ্ববিদ্যালয়পড়ুয়া এক শিক্ষার্থী বাবার মৃত্যুর শোক সইতে না পেরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন । বুধবার (১১ নভেম্বর) রাতে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার বিশকাকুনি ইউনিয়নের ধোবারুহী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ওই শিক্ষার্থী গ্রামের হাফেজ মাওলানা আবদুল বারীর ছেলে শেখ রাসেল (২৩)। তিনি ময়মনসিংহ আনন্দমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র।

জানা গেছে, রাসেলের বাবা স্থানীয় একটি মাদ্রাসার শিক্ষকতা করতেন। বুধবার রাত ৮টার দিকে তিনি স্ট্রোক করে মারা যান। বাবার মৃত্যুর শোক সহ্য করতে না পেরে ছেলে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে। ওই রাতেই বাড়ির পাশে তাদের ফিসারিজ ঘরের আড়ায় গলায় মাফলার দিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

মৃত্যুর আগে রাসেল তার ফেসবুক ওয়ালে লেখেন, হলো ‘আমার দুনিয়ায়, আমার আখেরাত আমার আব্বা! ডা. মাত্র আব্বারে মৃত ঘোষণা করল! দোয়া চাই, অবশ্যই আব্বাকে একা ছাড়ব নাহ..আমিও সঙ্গী হব, ইনশাআল্লাহ। আমার দুনিয়া, আমার আব্বা আমার সব, আমার কলিজা।


আমার অক্সিজেন ফুরিয়ে গেল, আমার দেহ থেকে কলিজা বিছিন্ন হলো! বাবা আমাদের জন্য আমৃত্যু সংগ্রাম করে গেলেন প্রতিদান দিলাম, দুশ্চিন্তা, ক্রোধ, আর নানা বাজে কাজ! আব্বা তুমি আমার সুপার হিরো! আমার বেঁচে থাকার সম্বল। তুমি নাই, আমি কি করে থাকব বলো? ১০টা বেজে গেল, কই তোমার ফোন তো আসল নাহ! কই আমার খোঁজ তো কেউ নিল নাহ।’

এ ব্যাপারে পূর্বধলা থানার ওসি মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন বলেন, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

রাজনীতি/কাসেম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here