ভারত নয় টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি নিউজিল্যান্ডের

ক্রীড়া প্রতিবেদক প্রকাশিত : ২৪ জুন ২০২১

প্রথমবার আয়োজিত আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি জিতল নিউজিল্যান্ড। এ জয়ের মাধ্যমে ক্রিকেট বিশ্বে নতুন এক ইতিহাস গড়ল নিউজিল্যান্ড। ভারতকে ৮ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাসের পাতায় নিজেদের নাম লিখে রাখল কিউইরা। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের অর্ধশতকে ভর করে বৃষ্টিবিঘ্নিতি ম্যাচটিতে সহজ জয় তুলে নেন ব্লাক ক্যাপসরা।

১৩৯ রানের টার্গেটে খেলতে নেমে দারুণ শুরু করেন দুই ওপেনার ডেভিড কনভয় ও টন ল্যাথাম। গড়ে তোলেন ৮১ বলে ৩৩ রানের পার্টনারশিপ। এরপরই বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান টম ল্যাথামকে তুলে নেন অফস্পিনার বরিচন্দ্রন অশ্বিন। ৪১ বলে ৯ রান করেন তিনি। এরপর মাঠে আসেন কিউই দলনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

তারপর ৮১ বলে ৩৩ রানে বিদায় নেন আরেক ওপেনার ডেভিড কনভয়। তাকেও বিদায় করেন অফস্পিনার অশ্বিন। দলীয় অর্ধশতকের আগে দুই ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে কিউইরা। তবে অভিজ্ঞ টেইলরকে সঙ্গে নিয়ে এজবাস্টনে ইতিহাস গড়েন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন।

এরআগে চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফির দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭০ রানে গুটিয়ে যায় ভারত। ট্রফি জেতার জন্য নিউজিল্যান্ডের টার্গেট দাড়াঁয় ১৩৯। ভারত প্রথম ইনিংসে যাও একটু লড়াই করেছিল, দ্বিতীয় ইনিংসে কেউই পেসারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি।

বৃষ্টির কারণে টেস্টের প্রথম আর চতুর্থ দিন মাঠে গড়ায়নি এক বলও। সবমিলিয়ে প্রথম চারদিনে খেলা হয়েছে ১৪১ ওভারের মতো। পঞ্চম দিনের সকালে ফের বৃষ্টি। প্রায় ঘণ্টাখানেক দেরিতে খেলা শুরু হয়। নিউজিল্যান্ড শুরু করে ২ উইকেটে ১০১ রান নিয়ে। সেই সময়টা পর্যন্ত বেশ ভালো অবস্থানে ছিল কিউইরা।

কিন্তু মোহাম্মদ শামি রুদ্ররূপে হাজির হয়ে সেই ভালো অবস্থা নড়িয়ে দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের। সবমিলিয়ে ৭৬ রান খরচ করে নিয়েছেন ৪টি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। ভারতকে দিনের প্রথম উইকেটটিই এনে দেন শামি। অভিজ্ঞ রস টেলরকে ফেরান ১১ রানেই। তারপর ভারতীয় এই পেসারের শিকার হয়ে একে একে সাজঘর ধরেন বিজে ওয়াটলিং (১), কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম (১৩) আর কাইল জেমিসন (২১)।

মাঝে হেনরি নিকোলসকে আউট করেছিলেন ইশান্ত শর্মা (৭)। নিউজিল্যান্ড ইনিংসের একটা প্রান্ত ধরে রাখা কেন উইলিয়ামসনকেও ফিফটিবঞ্চিত করেছেন তিনিই। দলের অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৪৯ রানে ফেরেন কিউই অধিনায়ক।

তারপর নেইল ওয়েগনারকে রানের খাতা খুলতে দেননি রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তবে টিম সাউদি ব্যাটসম্যানের মতো খেলে দলকে আড়াইশর দোরগোড়ায় পৌঁছে দিয়েছেন। ৩০ রানে তিনি শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন রবীন্দ্র জাদেজার বলে।

রাজনীতি/এসকে

আপনার মতামত লিখুন :