যশোরে করোনায় মৃত্যু ৮৪ জন, শনাক্ত ৭ হাজার

যশোর প্রতিনিধি প্রকাশিত : ১০ জুন ২০২১

যশোরে করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭ হাজার ৮৯৯ জন। মারা গেছেন ৮৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ হাজার ৬৬০ জন। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) দুপুরে বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক রাশেদা সুলতানা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় যশোর ও নওয়াপাড়া পৌরসভায় বিধিনিষেধ আরোপ করে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

যশোর জেনারেল হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে (রেড জোন) নারী ও পুরুষের দুটি ওয়ার্ডে ৮০টি শয্যা রয়েছে। যশোর জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আর মাত্র ৮টি শয্যা খালি আছে। এদিকে প্রতিদিনই ১০ থেকে ১৫ জন রোগী ভর্তি হচ্ছেন।

এদিকে খুলনা বিভাগে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। দশটি জেলায় এর মাত্রা ভয়াবহ। খুলনা বিভাগে করোনা শনাক্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ছাড়িয়েছে। অন্যদিকে, মৃত্যু হয়েছে ৬৯৫ জনের। পরিসংখ্যান বিশ্লেষণে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যায় এগিয়ে খুলনা, সর্বনিম্নে রয়েছে মেহেরপুর।

এছাড়াও নড়াইলে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৯৬১ জন। মারা গেছেন ২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪৪ জন। মাগুরায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ২৯২ জন। মারা গেছেন ২৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ২১৫ জন।

বাগেরহাটে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৯৯১ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৫৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৬২ জন। সাতক্ষীরায় শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ১৫৭ জন এবং মারা গেছেন ৪৮ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ হাজার ৫২৫ জন।

চুয়াডাঙ্গায় শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ১৫৪ জন। মারা গেছেন ৬৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৪৩ জন। শনাক্তের দিক দিয়ে সর্বনিম্নে রয়েছে মেহেরপুর। এখানে শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ১১০ জন। আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮৮০ জন।

ঝিনাইদহে শনাক্ত হয়েছে ৩ হাজার ৩১ জন। মারা গেছেন ৫৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ৭৯০ জন। কুষ্টিয়ায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫ হাজার ৩৯৪ জন। মারা গেছেন ১২৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৭৬৬ জন।

খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনা জেলার একজন, বাগেরহাটের দুজন ও কুষ্টিয়ার দুজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। এদিকে করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে বেড়েছে রোগীর চাপ। এখানে ধারণ ক্ষমতার বেশি রোগী ভর্তি রয়েছে।

রাজনীতি/কেএম

আপনার মতামত লিখুন :