শুরুতে দুই উইকেট নেই শ্রীলংকার

ক্রীড়া প্রতিবেদক প্রকাশিত : ১ মে ২০২১

প্রথম ইনিংসে ২৪২ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমেই বিপাকে স্বাগতিক শ্রীলংকা। লংকান দুই তারকা ব্যাটসম্যান লাহিরু থিরিমান্নে ও ওসাদা ফার্নান্দোকে ফেরান মেহেদী হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলাম। পরপর দুই ওভারে দুই উইকেট তুলে নেন এ দুই স্পিনার।

২.২ ওভারে দলীয় ১৪ রানে থিরিমান্নেকে আউট করেন মিরাজ। ঠিক পরের ওভারের প্রথম বলে ওসাদাকে ফেরান তাইজুল। ৩.১ ওভারে ১৫ রানে দুই উইকেট নেই শ্রীলংকার।

তৃতীয় দিনের শেষ বিকালে ৭ ওভারে ১৭ রানে ২ উইকেট হারায় শ্রীলংকা। তৃতীয় দিন শেষে শ্রীলংকার লিড ২৫৯ রান।

ক্যান্ডিতে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে স্বাগতিক শ্রীলংকার ৪৯৩/৭ রানের পাহাড় ডিঙ্গাতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ২৫১ রানে অলআউট বাংলাদেশ দল।

শনিবার আগের দিনের করা ৪৬৯/৬ রান নিয়ে ফের ব্যাটিংয়ে নেমে এদিন ৪.১ ওভারে ২৪ রান যোগ করে ৭ উইকেটে ৪৯৩ রান নিয়ে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলংকা।

তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নেমে শুভ সূচনা করে বাংলাদেশ দল। উদ্বোধনীতে তামিম ইকবালের সঙ্গে ৯৮ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ফেরেন সাইফ হাসান। প্রথম টেস্টে ০ ও ১ রানে আউট হওয়া এই ওপেনার দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ফেরেন মাত্র ২৫ রান করে। তিনে ব্যাটিংয়ে নেমে শূন্য রানে ফেরেন প্রথম টেস্টর প্রথম ইনিংসে সেঞ্চুরি করা নাজমুল হোসেন শান্ত।

তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক মুমিনুল হক সৌরভের সঙ্গে ৫২ রানে জুটি গড়ে আউট হন তামিম ইকবাল। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৯০ রানে আউট হওয়া দেশ সেরা এ ওপেনার দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ফেরেন ৯২ রানে। তার ইনিংসটি ১৫২ বলে ১২টি চারে সাজানো।

পাঁচ নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে মুমিনুল হকের সঙ্গে ৬৩ রানের জুটি গড়ে ফেরেন মুশফিকুর রহিম। তার আগে ৬২ বলে ৭টি চারের সাহায্যে করেন ৪০ রান। মাত্র ১ রানের জন্য ফিফটি মিস করেন অধিনায়ক মুমিনুল হক সৌরভ। এরপর কোনো রান যোগ করার আগেই ফেরেন লিটন দাস (৮)।

৭ উইকেটে ২৪১ রান করা বাংলাদেশ দল এরপর মাত্র ১০ রান যোগ করতে হারায় ৩ উইকেট।  ৩৩ বলে ১৬ রান করে ফেরেন মেহেদী হাসান মিরাজ।  রানের খাতা খোলার সুযোগ পাননি তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম ও আবু জায়েদ রাহী।

রাজনীতি/সাদেক

আপনার মতামত লিখুন :