সিনহা হত্যা; কারাগারে ওসি প্রদীপ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার: কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত সাবেক সেনা কর্মকর্তা সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে ১৫ দিনের রিমান্ড শেষে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি ছাড়াই কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১ সেপ্টেম্বর) বিকেলে চতুর্থ দফা রিমান্ড শেষে প্রদীপকে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সোমবার (৩১ আগস্ট) প্রদীপকে একদিনের রিমান্ডে নেয় র‌্যাব। চাঞ্চল্যকর এ মামলায় এরই মধ্যে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন এক নম্বর আসামি বরখাস্ত ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী ও টেকনাফ থানার বরখাস্ত এসআই নন্দদুলাল রক্ষিত।

এদিকে, সিনহা হত্যার ঘটনায় পুলিশের করা মামলার তিন সাক্ষীর তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশের মামলার তিন সাক্ষী নুরুল আমিন, নিজাম উদ্দিন ও আয়াজকে কক্সবাজারের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে চারদিনের রিমান্ড আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে আদালত তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপরই আসামিদের র‌্যাব হেফাজতে নেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে নিহত হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদ। একে সরাসরি হত্যাকাণ্ড বলে দাবি করছেন সিনহার স্বজনরা। সেনাবাহিনী থেকে স্বেচ্ছায় অবসর নেয়ার পর বিশ্ব ভ্রমণের পরিকল্পনা করছিলেন মেজর সিনহা রাশেদ। ভ্রমণ বিষয়ক একটি ইউটিউব চ্যানেল বানানোর কাজও চলছিলো তার। এরই অংশ হিসেবে সিনহা কক্সবাজারে ভিডিও তৈরির কাজে গিয়েছিলেন বলে জানায় তার পরিবার। পরে পুলিশ দাবি করে, আত্মরক্ষার্থেই গুলি করা হয়েছে রাশেদকে।

রাজনীতি/কাজল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here