সীমান্তে চার জেলেকে নির্যাতন: পতাকা বৈঠকে সাড়া দিলো না বিএসএফ

খরচাকা সীমান্ত থেকে চার জেলেকে ধরে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের পর ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র পক্ষ হতে পতাকা বৈঠকের আহ্বানে সাড়া দিলো না ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার খরচাকা সীমান্ত থেকে চার জেলেকে ধরে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের পর ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায়  বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র পক্ষ হতে পতাকা বৈঠকের আহ্বানে সাড়া দিলো না ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)।

খরচাকা সীমান্ত ফাঁড়ির ক্যাম্প কমান্ডার নায়েক সুবেদার আব্দুল মান্নান সন্ধ্যা ৭ টার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গতকাল বুধবার খরচাকা সীমান্ত হতে বিএসএফ চার জেলেকে ধরে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের পর সন্ধ্যার পর ছেড়ে দেয়।

আমরা তা জানার পর বিএসএফের ডি-কোম্পানী ৩৫ ব্যাটেলিয়ানের নিকট পতাকা বৈঠকের আহ্বান করি। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ৫ টায় পতাকা বৈঠক হবার কথা ছিলো। আমরা বাংলাদেশ সীমান্তের ৫৩/৩ এস পিলারের নিকট গিয়ে অপেক্ষা করি। কিন্তু ভারতের ৩৫ ব্যাটেলিয়ান বিএসএফের ডি-কোম্পানী কমান্ডার রাজ কুমার সিং জানান আজ বৈঠকে বসছি না। আগামী কাল পতাকা বৈঠকে বসবেন বলে জানান। এর পরই বিজিবি সেখান হতে ফেরত আসে বলে জানান।


উল্লেখ্য যে, বুধবার গোদাগাড়ী খরচাকা সীমান্তে চার বাংলাদেশী জেলে নৌকায় মাছ ধরতে যায় এতে করে বিএসএফ চার জেলেকে ধরে নিয়ে গিয়ে ব্যাপক শারীরিক ভাবে নির্যাতন করে ছেড়ে দেয়। তবে তাদের তিনটি নৌকা এখনো আটকে রেখেছে। নির্যাতনের শিকার জেলেরা হলেন,রাজশাহীর পবা উপজেলার গহমাবোনা গ্রামের মৃত জকিমুদ্দিনের ছেলে মো. আলম, আলমের ছেলে আনোয়ার, সাইদুর রহমানের ছেলে সিফাত এবং কসবা গ্রামের জুল্লুর ছেলে সোনারুল।

রাজনীতি/কাসেম/বাতেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here