ভালো কাজের মাধ্যমে এগিয়ে যেতে চান মেধাবী নির্মাতা সবুজ খান

বিনোদন প্রতিবেদক

শুক্রবার, ৮ অক্টোবর ২০২১, বিকাল ০৭:০০


শোবিজ মানেই নতুন কিছু। যেখানে প্রতিনিয়ত স্বপ্নবাজদের আনাগোনা। এক আকাশ স্বপ্ন নিয়ে এখানে যুক্ত হচ্ছে প্রতিভাবান অজস্র তরুণ তরুণী। অভিনেতা, অভিনেত্রী থেকে শুরু করে নির্মাতা হিসেবেও এখানে জায়গা করে নিচ্ছেন অসংখ্য মেধাবী। কাজের যোগ্যতা দিয়ে কেউবা টিকে যাচ্ছেন আবার যোগ্যতার অভাবে অনেকেই হারিয়েও যাচ্ছেন। তবে ২০০০ থেকে ২০২০ এই দশকের মাঝে যে নির্মাতারা এসেছেন তাদের মাঝে বেশকিছু নির্মাতা নিজের সু-নির্মানে নিজের নামের আলো ছড়িয়েছেন। তেমনই একজন মেধাবী নির্মাতা সবুজ খান।

 

যিনি একাধারে একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র নির্মাতা এবং টেলিভিশন নাটকের পরিচালক। সবুজ খানের জন্মগ্রহণ ও বেড়ে ওঠা টাঙ্গাইল জেলার মধুপুরে।

চিত্রগ্রাহক পরিচয়ে ক্যারিয়ার শুরু করলেও কাজের মাধ্যমে নিজেকে একজন সফল পরিচালক হিসেবে ছাড়িয়ে যেতে চান সবুজ খান।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পরিশ্রম কখনও বৃথা যায় না। এখন শুধু ভালো কাজের (নির্মাণ) মধ্যে দিয়ে সময় পার করতে চাই। কারণ একমাত্র কাজই নিজেকে স্বপ্নের ঠিকানায় পৌঁছে দিতে পারে।’

২০১২ সালে ‘গণিকা এখন আমি’ নিয়ে টেলিভিশন নাটক নির্মাণ শুরু করেন সবুজ খান। এখন পর্যন্ত তিনি প্রায় ২৫টি নাটক পরিচালনা করেছেন। তার প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘রজকিনী চণ্ডীদাস’ খুব শিগগির বড় পর্দায় মুক্তি পাবে বলেও জানালেন তিনি।

সবুজ খানের উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে রয়েছে গণিকা এখন আমি, কপাল, কালো মেক-আপ, অভিমানিনী, কমিউনিকেশন গ্যাপ, গল্প হলেও পারতো, গাঁয়ের মানুষ, যুদ্ধের শেষ অংশ, পারবো না ছাড়তে তোকে, গল্পের শেষ কোথায়, বিবাহিত বনাম অবিবাহিত, বকবক বক্কর, ভালোবাসা এই পথে গেছে।

এমএসি/আরএইচ

Link copied