রাশিয়ার বিরুদ্ধে করোনা টিকার ফর্মুলা চুরির অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বুধবার, ১৩ অক্টোবর ২০২১, বিকাল ০৬:৪০


করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পর থেকেই এর স্বীকৃতি আর কার্যকারিতা নিয়ে মুখোমুখি বিভিন্ন দেশ। এ নিয়ে হয়েছে নানা আলোচনা। এবার উঠেছে ভ্যাকসিনের সূত্র চুরির মতো গুরুতর অভিযোগ। এক রুশ গুপ্তচরের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে টিকার ফর্মুলা চুরির।

ব্রিটিশ বেশ কিছু গণমাধ্যম দাবি করেছে, অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার ফর্মুলা চুরি করেছে ওই গুপ্তচর। সেই আদলে স্পুৎনিক ভি ভ্যাকসিন তৈরি করেছে রাশিয়া।

এসব প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, ব্রিটেন ভ্যাকসিন আবিষ্কারের একমাস পরই করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে রাশিয়া। দুই টিকার কার্যপ্রণালীও একই রকম। অ্যাস্ট্রাজেনেকা এবং স্পুৎনিক দুটোই মানবদেহের প্রতিরক্ষা প্রণালীকে সক্রিয় করে ভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তোলে। ব্রিটিশ টিকার ফর্মুলা চুরির জন্য ২০২০ সালে অক্সফোর্ডের সার্ভারে সাইবার হামলাও করা হয়।

এ বিষয়ে স্পষ্ট বক্তব্য না দিলেও এমন অভিযোগ উড়িয়ে দেয়া যায় না বলে মন্তব্য করেছেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি এখনই কিছু বলতে রাজি নই। তবে এটাও সত্য যে এ ধরণের অভিযোগ পুরোপুরি উড়িয়ে দেয়া যায় না। বিদেশি শক্তিগুলো সব সময়ই আমাদের সংবেদনশীল তথ্য এবং বুদ্ধিবৃত্তিক সম্পদ হাতিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে।

এদিকে এ ধরণের অভিযোগে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে মস্কো। স্পুৎনিক ভি কর্তৃপক্ষ বলছে যথাযথ শর্ত এবং পদক্ষেপ অনুসরণ করেই চূড়ান্ত ধাপে পৌঁছেছে তাদের ভ্যাকসিন।

রুশ পররাষ্ট্রন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, এসব একেবারেই অবান্তর বিষয়। এসব নিয়ে মন্তব্য করার কোনো অর্থ হয় না। আমার মনে হয় না ব্রিটেন কিংবা যুক্তরাষ্ট্র কেউই এ ধরণের অভিযোগকে গুরুত্বের সাথে নেবে।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১১ আগস্ট স্পুৎনিক ভি ভ্যাকসিন আবিষ্কারের ঘোষণা দেয় রাশিয়া। করোনার বিরুদ্ধে এ টিকাকে ৯২ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করা হয়।ৎ

সূত্র: দ্য সান

এমএসি/আরএইচ

Link copied