অপহরন ও হত্যা মামলার আসামী গ্রেপ্তার, পরিবারের দাবি দূর্ঘটনা!

ভোলা প্রতিনিধি: ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় হত্যা মামলার এক আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে সদর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার (২১জুলাই) দুপুর ২টায় চরফ্যাশন নতুন বাস টার্মিনাল থেকে মাদ্রাজ ইউনিয়নের আব্দুল কুদ্দুস মাঝীর ছেলে মো. রাকিব (২৩) কে গ্রেপ্তার কওে পুলিশ।

মামলার তথ্য বিবরনী থেকে জানা জানা যায় চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আনোয়ার মিয়াজীর মেয়ে সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী তানজিলা (১৩) কে গত (১১জুলাই) শনিবার দুপুর ২টায় প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার সময় অপহরণ করে নিয়ে যায় রাকিব ও তার সহযোগিরা। বিকাল ৩টার সময় চরফ্যাশন পৌর ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহির রায়হানের বাসা সংলগ্ন এলাকার সড়ক দিয়ে মটোর সাইকেলে করে তানজিলাকে নিয়ে যাওয়ার সময় তানজিলা ধস্তাধস্তি করলে রাকিব ধাক্কা দিয়ে মটোর সাইকেল থেকে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়।

এসময় তানজিলা গুরুতর আহত হলে স্থানিয়রা উদ্ধার করে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে বরিশাল শের ই বাংলা হাসপাতালে রেফার করলে অবস্থার অবনতী হলে ভোলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এদিকে রাকিবের পবিার দাবি করেন, দির্ঘদিন ধরে আনোয়ার হোসেন মিয়াজীর মেয়ে তানজিলা রাকিবের সাথে প্রেমের সম্পর্ক করে। পরে ওই দিন রাকিবকে ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার জন্য বায়না ধরলে রাকিব বাধ্য হয়ে তানজিলাকে নিয়ে ঘুরতে যায়।

পরে কাউন্সিলর জহির রায়হানের বাসা সংলগ্ন সড়কে বিপরিত দিক থেকে আসা দ্রুতগতীর গাড়িটিকে সাইড দিতে গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। এসময় রাকিবসহ তানজিলা আহত হলে গুরুতর বিবেচনায় তানজিলাকে উদ্ধার করে স্থানিয়রা দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যায়।
রাকিব তানজিলাকে অপহরণ ও হত্যার সাথে জড়িত নয়। তানজিলা দুর্ঘটনার শিকার।

এ বিষয়ে চরফ্যাশন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুল আরেফিন বলেন, তানজিলার পিতা আনোয়ার হোসেন মিয়াজী গত ১২জুলাই বাদি হয়ে চরফ্যাশন থানায় অপহরণ ও হত্যা মামলাটি দায়ের করলে পুলিশ রাকিবকে গ্রেপ্তার করে। তাকে আগামীকাল আদালতে প্রেরণ করা হবে।

রাজনীতি/কাসেম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here