ইংল্যান্ডের জার্সিতে লুইনের অভিষেক

ডমিনিক কালভার্ট-লুইন ।

ক্রীড়া ডেস্ক: ইংল্যান্ডের জার্সিতে অভিষেক হয়েছে এভারটনের স্ট্রাইকার ডমিনিক কালভার্ট-লুইন। অভিষেক ম্যাচেই গোল করে স্মরণীয় করে রেখেছেন দারুণ ফর্মে থাকা ২৩ বছর বয়সী এ ফুটবলার। পরীক্ষা নিরিক্ষার জন্য গড়া ইংলিশ দলটি আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে ওয়েলসকে ৩-০ গোলে পরাজিত করেছে। ওয়েম্বলিতে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ইংল্যান্ডের হয়ে প্রথম গোলটিই লুইন করেন।

এই মৌসুমে এরই মধ্যে ১০ গোল করে ফেলেছেন লুইন। যার মধ্যে ৯ গোল করেছেন নিজ ক্লাব এভারটনের হয়ে মাত্র ৬ ম্যাচে। এই ইংলিশ স্ট্রাইকার প্রথমার্ধেই গোল করে এগিয়ে দেন স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে। তার পথ ধরে অভিষেকে গোল করেছেন উলভস ডিফেন্ডার কনর কোডি। বিরতির পর গোলটি করেছেন তিনি। ইংল্যান্ডের হয়ে তৃতীয় গোলটি করেছেন সাউদাম্পটনের স্ট্রাইকার ড্যানি ইঙ্গস। দেশের হয়ে এটি ছিল তার প্রথম গোল। অসাধারণ ওভারহেড কিকের সাহায্যে গোলটি করেছেন তিনি।

কয়েক মাস ধরেই লুইনের উত্থানে মুগ্ধ ইংল্যান্ডের কোচ সাউথগেট বলেন, ‘তার পারফর্মেন্স দুর্দান্ত। সত্যিই ভালো। তার দৌড় প্রতিপক্ষের জন্য হুমকির মতো। সে প্রতিপক্ষকে দারুন চাপে রাখতে পারে। গোলও আদায় করেন বেশ ভালোভাবেই। সে সত্যি আমাকে সন্তুষ্ট করেছে। সে সত্যি ভাল ফর্মে আছে। সে হচ্ছে অলরাউন্ডার সেন্টার ফরোয়ার্ড। আমি সব সময় তার খেলা পছন্দ করি। কিন্তু এই গোলটি তাকে অন্য পর্যায়ের খেলোয়াড়ে পরিণত করেছে।’

কোভিড-১৯ এর সংক্রমণের কারণে টমি আব্রাহাম, বেন চিলওয়েল ও জর্ডান সানচোকে স্কোয়াডে রাখা যায়নি। যে কারণে ক্লাব ফুটবলে ভাল দক্ষতা প্রদর্শনকারী খেলোয়াড়দের নিয়ে প্রীতি ম্যাচের জন্য ইংলিশ স্কোয়াড গঠন করা হয়। সাউথগেটের মুল লক্ষ্য নেশন্স লীগের জন্য একটি ভাল স্কোয়াড তৈরী করা। অভিজ্ঞদের বাইরে রেখে তুলনামূলক কম অভিজ্ঞদের নিয়ে গড়া সাউথগেটের দলটির সম্মিলিত আন্তর্জাতিক ম্যাচের সংখ্যা ৫৪টি, গত ৪৪ বছরে যা সর্বনিম্ন।

নতুন চেহারার আক্রমণভাগ নিয়ে শুরুতে ইংলিশদের খেলার গতি কিছুটা কম ছিল। তবে অভিষিক্ত লুইনের লক্ষ্যভেদে ম্যাচের শুরুর দিকেই এগিয়ে যায় তারা। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লুইন ২৫তম মিনিটে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন। প্রথম একাদশে সুযোগ পাওয়া জ্যাক গ্রিলিশের নির্ভুল ক্রসের বল ছোট ডি-বক্সে নিয়ন্ত্রনে নিয়ে জালে পাঠান এই ফরোয়ার্ড।

দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। ডান দিক থেকে অধিনায়ক কিয়েরান ট্রিপিয়ারের ক্রস থেকে ছোট ডি-বক্সের বাইরে ফাঁকায় বল পেয়ে হাফ-ভলিতে লক্ষ্য ভেদ করেন উলভারহ্যাম্পটন ওয়ানডারার্সের সেন্টার-ব্যাক কোডি। ৬৩তম মিনিটে ইঙ্গসের দর্শনীয় গোলে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় ইংল্যান্ড। কর্নার থেকে উড়ে আসা বল হেডে পাশে বাড়ান টাইরন ইঙ্গস। ফাঁকায় পেয়ে দারুণ ওভারহেড শটে বল জালে পাঠান সাউদাম্পটন ফরোয়ার্ড।

রাজনীতি/আফজাল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here