সাকিবকে নিয়ে আকরাম ও নান্নুর ভিন্ন মত!

ক্রীড়া ডেস্ক: সব কিছু ঠিক থাকলে এক বছরের নিষেধাজ্ঞা মুক্ত হয়ে হয়ত শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে দ্বিতীয় ম্যাচেই ফিরবেন সাকিব আল হাসান। বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে লঙ্কানদের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট খেলানোর পক্ষে। ইতিমধ্যে তিনি বলেও ফেলেছেন, সাকিব শ্রীলঙ্কার সাথে দ্বিতীয় টেস্টেই মাঠে নামবে।

কিন্তু সেটা বাস্তবে সম্ভব কিনা ? সত্যিই সাকিব শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে পারবেন কি না? তা নিয়ে সংশয়-সন্দেহ রয়েই গেছে।

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিনের বরাত দিয়ে একাধিক প্রতিবেদনে তা প্রকাশিতও হয়েছে। আজ বুধবার সেই পুরনো কথা নতুন করে বললেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। এছাড়া ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খানও একই ইস্যুতে কথা বলেছেন ।

দু’জনার সুর কিন্তু একই রকম। কারো মুখ থেকে এমন কোনো কথা উচ্চারিত হয়নি, যা শুনে মনে হতে পারে সাকিব শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্ট খেলছেনই এবং তাকে দ্বিতীয় টেস্টে নামানোর কাজ জোরে সোরে শুরু হয়েছে বা হবে।

বরং দুজনই বলে দিয়েছেন, ‘২৯ অক্টোবর নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হবার আগ পর্যন্ত সাকিব সেভাবে তাদের ভাবনায় নেই।’ দু’জনই বুঝিয়ে দিয়েছেন, আসলে আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে ২৮ অক্টোবর পর্যন্ত সাকিবকে নিয়ে কিছু করার সুযোগও নেই।

আজ বুধবার বিকালে শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে উপস্থিত হয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আকরাম খানও মিনহাজুল আবেদিন নান্নু সাকিবের শাস্তিমুক্ত হয়ে মাঠে নামা নিয়ে কথা বলেছেন।

প্রশ্ন ছিল সাকিব ইস্যুর প্রক্রিয়া কি? ঠিক দুই সপ্তাহ আগে এক গণমাধ্যমের সঙ্গে একান্ত আলাপে একই প্রশ্নের মুখোমুখি হয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু যা বলেছিলেন, আজ সে একই কথাই বললেন আকরাম খানও।

বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি প্রধান আকরাম খান বিষয়টার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন, ২৯ অক্টোবর শাস্তিমুক্ত হবার আগের দিন পর্যন্ত সাকিকে নিয়ে ভাবার এবং কিছু করার অবকাশও নেই।

আকরামের ব্যাখ্যা এরকম, ‘আমাদের গাইডলাইন হবে ২৯ তারিখের পরে তার আগে নয়। আপনারাও জানেন, আইসিসি থেকে নিষেধাজ্ঞা আছে এবং আমি আপনাদের অনুরোধ করবো- যেহেতু এখনো পর্যন্ত ওর সবকিছু ভালো আছে এবং শাস্তিও শেষের দিকে, সুতরাং কোন কিছু যেন তার বিরুদ্ধে না যায়, আকসুর নিয়মানুসারে। সেটা একটু স্যাক্রিফাইস করবেন। আর আনুষ্ঠানিকভাবে তার সাথে আমরা কাজ করবো ২৯ তারিখ থেকে। তার আগে আমাদের কোচ যদি তাকে সাহায্য করতে চায় সে কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে গিয়ে করতে পারবে।’

অন্য দিকে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুর কাছে প্রশ্ন রাখা হয়েছিল, ‘সাকিবতো ফিরছেন, এখন অধিনায়কত্বের কি হবে? সাকিবের অধিনায়কত্ব নিয়ে তাদের ভাবনা কি?’

প্রধান নির্বাচকের জবাব, ‘অধিনায়কত্বের বিষয়টা বিসবির ব্যাপার, এটা আমাদের নির্বাচক প্যানেল থেকে আসে না।’

পরের প্রশ্ন ছিল সাকিবকে দলে রাখার প্রক্রিয়া কি? নান্নুর মুখে নতুন করে সেই পুরোন কথা, ‘এটা এই মুহূর্তে আমি কিছু বলতে পারবো না। কারণ টিম ম্যানেজমেন্ট সিদ্ধান্ত নেবে যে কিভাবে কি করবে। ওর নিষেধাজ্ঞা তো অক্টোবর পর্যন্ত আছে, এরপর কি করণীয় আছে টিম ম্যানেজমেন্ট, প্রধান কোচ না আসা পর্যন্ত কিছু বলতে পারছি না।’

রাজনীতি/আফজাল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here