সিনেমা হল বাঁচাতে ৭০০ কোটি টাকা

মণিহার সিনেমা হল ।

বিনোদন প্রতিবেদক: মহামারী করোনার কারনের দীর্ঘদিন ধরে দেশের প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ রয়েছে। দেশের সব সিনেমা হল বন্ধ রয়েছে। সিনেমা হলের তালা কবে খুলবে সেটিও জানা নেই চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের। এমন পরিস্থিতিতে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা লোকসান গুনতে হচ্ছে হল মালিকদের। পাশাপাশি সংস্কারের অভাবে অধিকাংশ সিনেমা হলের বেহাল দশা। তাই এবার চলচ্চিত্র শিল্প অর্থাৎ সিনেমা হল বাঁচাতে সরকারের তরফে ৭০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে।

গত ২৫ আগস্ট সিনেমা হল বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি বিশেষ তহবিল গঠনের ঘোষণা দিয়েছিলেন। সেই ধারাবাহিকতায় মাত্র দুই সপ্তাহের মাথায় তহবিল গঠনের খবর মিললো। এর বেশিরভাগ অর্থ ব্যয় হবে সিনেমা হল পুনরায় চালু এবং সংস্কারের কাজে। পাশাপাশি চলচ্চিত্র পরিবারের আওতায় ১৯টি সংগঠনের তরফেও আলাদা আবেদনপত্রে চলচ্চিত্র নির্মাণের জন্য বরাদ্দ রাখার আর্জি জানানো হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার জানান, ‘চলচ্চিত্র শিল্পকে বাঁচাতে শুধু সিনেমা হল চালু করলে হবে না। পাশাপাশি বানিজ্যিক ধারার নতুন সিনেমাও নির্মাণ করতে হবে। প্রতি বছরে অন্তত ৪টি বানিজ্যিক ধারার সিনেমা নির্মাণ করা প্রয়োজন। তাই ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ পেলে ভালো সিনেমা নির্মাণ করা সম্ভব। ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট সংগঠন মিলে আমরা একটি আবেদনপত্র প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পাঠিয়েছি।’

সিনেমা হলের উন্নয়নে সরকারের তরফে যে ৭০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হচ্ছে, সেটি বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে দেওয়া হবে। এমনকি তা খুবই স্বল্প সুদে ও দীর্ঘ মেয়াদি কিস্তিতে পরিশোধ করার সুযোগ পাবেন সিনেমা হল সংশ্লিষ্টরা। বিষয়টি সম্পর্কে প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু বলেন, ‘এই টাকা কোনো ব্যাংকের নয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই তহবিল গঠন করে দিয়েছেন। যা বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে কয়েকটি ব্যাংকে রাখা হবে। এখান থেকে আগ্রহীরা ঋণ নিতে পারবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘যতটুকু শুনেছি, ১-২ শতাংশ সুদে এই ঋণ নেওয়া যাবে। আর ২০-২৫ বছরের মধ্যে সেটি পরিশোধ করতে হবে। খুব শিগগিরই বরাদ্দের টাকা বাংলাদেশ ব্যাংকে পৌঁছাবে।’ খসরুর কথায়, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদের সঙ্গে বসবে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সংগঠনগুলো। আশা করছি, বৈঠকে ঋণ সম্পর্কিত সকল দিক নির্দেশনা পাওয়া যাবে। শুধু তাই নয়, সিনেমা হল কবে থেকে খুলবে সে বিষয়েও একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

রাজনীতি/কামরুল/হাসান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here