হোলসেল ক্লাবের সঙ্গে ইভ্যালির চুক্তি

হোলসেল ক্লাবের সঙ্গে ইভ্যালির চুক্তি ।

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিস্তৃত পরিসীমার পণ্যসম্ভারের মাধ্যমে ক্রেতাদের লাইফস্টাইলের মানোন্নয়নে হোলসেল ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে জনপ্রিয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ইভ্যালি।

দেশের শীর্ষস্থানীয় এই ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মটি সর্বোত্তম উপায়ে উচ্চ মানসম্পন্ন পণ্যের মাধ্যমে ক্রেতাদের সেবাদানে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। আর এরই ধারাবাহিকতায় হোলসেল ক্লাবের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হল প্রতিষ্ঠানটি।

চুক্তির ফলে ইভ্যালি থেকে অর্ডারের মাধ্যমে ক্রেতারা তাদের পছন্দের হোলসেল ক্লাবের পণ্যের সময়মতো ও ঝামেলাবিহীন ডেলিভারি সেবা উপভোগ করতে পারবেন। নিজেদের লাইফস্টাইলে নতুন মাত্রা যোগ করতে ক্রেতারা ৩৫ হাজারেরও বেশি পণ্যের সম্ভার থেকে নিজেদের পছন্দের পণ্য কিনতে পারবেন। এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে- বিশ্বমানসম্পন্ন ইলেক্ট্রনিকস সামগ্রী, ফার্নিচার, ক্রোকারিজসহ অন্যান্য হোমওয়্যার।

দেশের প্রথম ও একমাত্র হাইপার মার্কেট হল হোলসেল ক্লাব। ক্রেতারা যাতে তাদের পছন্দ এবং সামর্থ্য অনুযায়ী সঠিক পণ্যটি বেছে নিতে পারেন এজন্য স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক পণ্য বিক্রির মাধ্যমে একটি প্রতিযোগিতামূলক ব্যবসার পরিবেশ তৈরি করতে চায় এই প্রতিষ্ঠানটি। প্রতি মুহূর্তে উন্নত গ্রাহক অভিজ্ঞতায় নিজেদের প্রচেষ্টার কারণে যমুনা ফিউচার পার্কে দেড় লাখ স্কয়ার ফিটের এ আউটলেট গত বছরের ১৫ অক্টোবর যাত্রা শুরুর পর থেকে ক্রেতাদের প্রথম পছন্দ হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে।

এদিকে ৪০ লাখের বেশি নিবন্ধিত ক্রেতা ও ২০,০০০ সাপ্লায়ার ব্র্যান্ড নিয়ে দেশের দ্রুত বর্ধনশীল ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম হল ইভ্যালি। বই, ওয়্যারেবল, ইলেকট্রনিক গ্যাজেট, গাড়ি এমনকি রিয়েল স্টেট থেকে শুরু করে বিস্তৃত পরিসীমার পণ্যের মাধ্যমে গর্বের সঙ্গে ক্রেতাদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে এই ই-কমার্স প্ল্যাটফর্মটি। ইভ্যালি’র লক্ষ্য ক্রেতাদের উন্নত শপিং অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করা। এছাড়া ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

এ অংশীদারিত্বের বিষয়ে ইভ্যালির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল বলেন, ‘যাত্রার শুরু থেকেই আমরা গ্রাহককেন্দ্রিক ভাবনা নিয়ে এগিয়েছি এবং তাদের জীবন আগের চেয়ে সহজ করে তুলতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। হোলসেল ক্লাবের সঙ্গে অংশীদারিত্ব ক্রেতাদের সুবিধামতো বাসা থেকে উন্নত শপিং অভিজ্ঞতাদানে আমাদের অঙ্গীকারকে দৃঢ় করেছে। হোলসেল ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি করতে পেরে আমরা আনন্দিত। ইভ্যালি ও হোলসেল ক্লাবের উদ্দেশ্য একই। তাহল ক্রেতাদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে বিবেচনা করা।’ যমুনা গ্রুপের পরিচালক এসএম আবদুল ওয়াদুদ বলেন, ‘বৈশ্বিক মহামারীর কারণে সবাই নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। ক্রেতাদের এ সংকট থেকে উত্তরণে উদ্ভাবনী অনেক অফার নিয়ে আসার পরিকল্পনা রয়েছে হোলসেল ক্লাবের। আমাদের পণ্য আর ইভ্যালির সেবার মাধ্যমে ক্রেতাদের লাইফস্টাইলের মানোন্নয়নই আমাদের লক্ষ্য। আমার বিশ্বাস, এ অফারের মাধ্যমে ক্রেতাদের মুহূর্তগুলো আরও আনন্দময় হবে।’

ইভ্যালি’র চেয়ারম্যান শামীমা নাসরিন এবং হোলসেল ক্লাবের পরিচালক সারীয়াত তাসরিন নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এ সময় হোলসেল ক্লাবের মার্কেটিং অ্যান্ড কমিউনিকেশন ম্যানেজার মো. আবদুল মতিন তারেক, প্রতিষ্ঠানটির জেনারেল ম্যানেজার মো. লোকমান হোসেন এবং ইভ্যালি’র বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার জাহেদুল ইসলাম হিময় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রাজনীতি/কাজল

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here