গণমাধ্যমকে শক্তিশালী করতে চেষ্টা করছে সরকার: তথ্যমন্ত্রী

রাজনীতি ডেস্ক

মঙ্গলবার, ৫ অক্টোবর ২০২১, রাত ০৯:৫২


তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, বাংলাদেশের গণমাধ্যমকে শক্তিশালী বানাতে সরকার চেষ্টা করছে। রাজধানীর প্যান পাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের পদ্মা সম্মেলন কক্ষে মঙ্গলবার (৫ অক্টোবর) বিকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কেবল সরকারের সদিচ্ছার ওপর শক্তিশালী গণমাধ্যমের বিষয়টি নির্ভর করে না। ব্যবসায়ী ও নিজ স্বার্থে বিভিন্ন গণমাধ্যম মালিকরা সাংবাদিকদের ব্যবহারের চেষ্টা করেন। সভা-সেমিনারে সাংবাদিকদের সঙ্গে যখন কথা বলি তখন তারা এ নিয়ে মুখ খোলেন না। কিন্তু ব্যক্তিগতভাবে আলোচনার সময় তারা এই বাধার কথা স্বীকার করেন।’

ডা. হাছান মাহমুদের আশা, প্রকল্পটি সাংবাদিকদের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে এবং গণমাধ্যমগুলো অভ্যন্তরীণ ও বহিরাগত চাপ থেকে মুক্ত থাকবে। তার কথায়, ‘আমাদের দেশে অনেকে মনে করে সুসংবাদ মানে কোনও সংবাদ নয়, খারাপ সংবাদ মানে ভালো সংবাদ। আমি এর সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করি। যখন একটি দেশ এগিয়ে যায় তখন সেই দেশের মানুষকে আশাবাদী হতে হয়। একটা রাষ্ট্রে ও সমাজে টেকসই উন্নয়ন ও শক্তিশালী গণতন্ত্রের জন্য শক্তিশালী গণমাধ্যম থাকা জরুরি। তাই সরকার তথ্য অধিকার আইন করেছে।’

বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন জানান, যত বেশি আস্থাযোগ্য জায়গা থেকে তথ্য পাওয়া যাবে ততো মানুষের জীবন আরও উন্নত হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘তথ্যের ইকো-সিস্টেমের অন্যতম মৌলিক বিষয় হলো নির্ভরযোগ্য অন্তর্ভুক্তিমূলক মুক্ত ও বহুমাত্রিক গণমাধ্যম। এটি কার্যকরি ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সরকারকে সহযোগিতা করে। সোজা কথায় এর মানে হলো, নাগরিকরা যত বেশি তথ্য জানবে ততো তারা সরকার যেসব সেবা দেয় এবং যে নীতিতে চলে সেগুলোকে জবাবদিহিতার আওতায় আনতে পারবে।’

এমএসি/আরএইচ

Link copied