গভীর রাতে ডাকাতদলের হানা, গণপিটুনিতে নিহত ১

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১, রাত ০৮:৫৪


মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলায় সোমবার রাতে ডাকাত সন্দেহে গ্রামবাসীর গণপিটুনিতে এক যুবক নিহত হয়েছেন। উপজেলার বকচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ডাকাতদলের সময় হামলায় গৃহকর্তাসহ তিনজন আহত হয়েছেন।

নিহত ডাকাত সদস্যের নাম আতোয়ার রহমান। তিনি দৌলতপুর উপজেলার বিনোদপুর গ্রামের সুলতান হোসেনের ছেলে।

আহত ব্যক্তিরা হলেন বকচর গ্রামের অটল চক্রবর্তী এবং তার স্ত্রী শিপ্রা রানি চক্রবর্তী ও মা গীতা রানি চক্রবর্তী। তাদের জেলা সদরের ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. কাজী একেএম রাসেল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, সোমবার রাত ৩টার দিকে ৫-৬ জনের এক ডাকাত দল বকচর গ্রামের অটল চক্রবর্তী বাড়িতে হানা দেয়। এ সময় ডাকাতেরা অটল চক্রবর্তী, তার স্ত্রী ও মায়ের হাত-পা বেঁধে মারধর শুরু করেন। এর পর ঘরে ভেতরে স্বর্ণালংকার ও মালামাল লুট করার সময় চিৎকার করলে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে দুই ডাকাত সদস্যকে আটক করেন। বাকি ডাকাতরা পালিয়ে যান। 

স্থানীয় মহাদেবপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ইয়াকুব আলী মোল্লা বলেন, ঘটনার পর গ্রামবাসী দুই ডাকাত সদস্যকে আটক করে গণপিটুনি দেন। এতে আতোয়ার রহমান ঘটনাস্থলেই মারা যান। খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে পুলিশ ওই গ্রাম থেকে নিহত আতোয়ারে লাশ উদ্ধার করে। এ ছাড়া আটক ডাকাত সদস্য লিটন শেখকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়। লিটনের বাড়ি সদর উপজেলার মিতরা গ্রামে।

এ ব্যাপারে শিবালয় থানার ওসি ফিরোজ কবির বলেন, ডাকাতির ঘটনা নয়, চুরি করতে গিয়েছিলেন তিন চোর। এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে এক চোর মারা গেছেন। ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলার ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। ঘটনাটি তদন্ত করা হচ্ছে। এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এমএসি/আরএইচ

Link copied