আফগানিস্তানে ফ্লাইট বাতিল করল পাকিস্তান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

শুক্রবার, ১৫ অক্টোবর ২০২১, রাত ০৯:২৪


আফগানিস্তানের সঙ্গে ফ্লাইট চালু রাখতে গিয়ে তালেবান সরকারে কঠোর হস্তক্ষেপের মুখে পড়তে হচ্ছে- এমন অভিযোগ তুলে দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট বাতিল ঘোষণা করেছে পাকিস্তানের আন্তর্জাতিক এয়ারলাইন্স ‘পিআইএ’। বৃহস্পতিবার থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর করেছে পাকিস্তান। 

 

তালেবান ক্ষমতায় আসার আগে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল থেকে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে যাওয়ার টিকেট যে দামে বিক্রি হচ্ছিল তার দশগুণ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে এখন। এ অবস্থায় পাকিস্তান এয়ারলাইন্সকে তাদের টিকেট ভাড়া কমিয়ে আগের দামে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল তালেবান। 

 

এর পরই মূলত ফ্লাইট বন্ধের এ সিদ্ধান্ত নিল পাকিস্তান। 

 

তালেবান সরকারের পরিবহন মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, টিকিটের দাম তালেবান ক্ষমতায় আসার আগের অবস্থার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হওয়া উচিত।

 

আগে টিকিটের দাম ১২০-১৫০ ডলার ছিল। আর এখন বিক্রি হচ্ছে ১২০০-১৫০০ ডলারে, যা কোনোভাবেই সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলেও জানায় দেশটির পরিবহন মন্ত্রণালয়। 

 

সামঞ্জস্যপূর্ণ ভাড়া না নিলে কাবুলে ইসলামাবাদের বিমান চলাচল নিষিদ্ধ করা হতে পারে বলেও জানিয়েছিল তারা। 

 

তবে পিআইএ মুখপাত্র আবদুল্লাহ খান জানিয়েছেন, তালেবান দৈবাৎ নিয়ম পরিবর্তন করেছে এবং স্টাফদের ভয়ভীতি দেখিয়েছে। এয়ারলাইন্সের স্টাফদের কয়েক ঘণ্টা বন্দুকের মুখে রাখা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। 

 

পিআইএ মুখপাত্র বলেন, ‘তালেবান কর্তৃপক্ষের বাড়াবাড়ির কারণে আমরা আজ থেকে কাবুলে আমাদের ফ্লাইট পরিচালনা স্থগিত করছি।’

 

তিনি আরও বলেন, ‘তালেবান কর্মকর্তারা পাকিস্তান এয়ারলাইন্সের স্টাফদের সঙ্গে অপমানজনক ভাষায় কথা বলেছে এবং এক স্টাফকে ধাক্কাও দিয়েছে।’

 

এ জন্য পরিস্থিতি অনুকূলে না আসা পর্যন্ত কাবুল থেকে পাকিস্তানে যাওয়া এবং আসার সব ফ্লাইটই বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন এ কর্মকর্তা। 

 

আগস্টের শেষে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনারা চলে যাওয়ার পর গত মাসে দেশটিতে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট শুরু হয়। তখন থেকে পাকিস্তান ও আফগানিস্তান দুই দেশের মধ্যে খুবই সীমিত পরিসরে বিমান চলাচল করেছে।
খবর রয়টার্স

এমএসি/আরএইচ

Link copied